আমাজন ওয়েব সার্ভিসেস [পর্ব-০১] :: অ্যামাজনে আপনার নিজের অ্যাকাউন্ট | Techtunes


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

প্রথমে সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা।  আমার টিউনে কোন ভুল হলে ক্ষমা করবেন। এই টিউন করার পূর্বে একটা কথা বলে নেয়া ভাল, আপনারা যারা অ্যামাজন সম্পর্কে এক্সপার্ট তাদের জন্য এই টিউন নয়। যারা একদম নিউ বা অ্যামাজন সম্পর্কে জানেন না তাদের জন্য।

আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন ক্লাউড নিয়ে কাজ করতে চান কিন্তু ফ্রি নেই বলে করতে পারেন না। অথবা আমরা অনেকে আছি এডব্লিউএস নিয়ে পড়তে চাই কিন্তু সুযোগ নেই ফ্রি কাজ করার। তবে অ্যামাজন আমাদের জন্য কিন্তু ১২ মাসের একটা ফ্রি সেবা দিচ্ছে যদি আপনি ইসি২ সেবা না নেন তাহলে আপনাকে কোন পেমেন্ট করতে হবে না। কিন্তু আমি অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস ব্যবহার করবেন কিন্তু ক্লাউড কম্পিউটার ব্যবহার করবেন না তা কি করে হয়? এই জন্য অবশ্যই আপনাকে ১ ডলার গুনতে হবে। অর্থাৎ আপনি যখন মাস্টার কার্ড দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলবেন সেই মাস্টার কার্ড থেকে ১ ডলার কেটে নিবে। তবে ১ ডলার দিয়ে আপনি ১২ মাসের জন্য অনলাইন ক্লাউড কম্পিউটার পাচ্ছেন। যেখানে আপনি চাইলে লিনাক্স মেশিন বা উইন্ডোজ সার্ভার মেশিন ব্যবহার করতে পারবেন। মাসে ৭৫০ ঘণ্টা ব্যবহারের সুযোগ। সেই মেশিন আপনার নিজের কম্পিউটার থেকে সরাসরি কানেক্ট করতে পারছেন রিমোট বা এসএসএইচ কমান্ড লাইনে মাধ্যমে।

এখন একটা কথা বলা দরকার আমাদের যাদের মাস্টার কার্ড নেই তাদের কি আমাজন অ্যাকাউন্ট হবে না? হবে তবে যে কারো মাস্টার কার্ড দিয়ে করতে পারেন। তবে আপনি নিজে কিন্তু সহজে একটি মাস্টার কার্ড নিতে পারেন। তবে এই নিয়ে টেকটিউনসে  পূর্বে একটি টিউন আছেন পড়ে নিতে পারেন। কিভাবে খুব সহজে একটি নিজের নামে মাস্টার কার্ড নেয়া যায়। এখন আমরা আসল টিউনে ফিরব।

১৯৯৪ সালে ৫ জুলাই জাফ বেজোস অনলাইনে একটি বইয়ের দোকান হিসাবে কার্যক্রম শুরু করেন, যেটা আজ বিশ্বের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স সাইট হিসেবে পরিচত। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ‘অ্যামাজন’ আমরা সবাই জানি।  ক্লাউড কম্পিউটিং এ যেসব আন্তজাতিক প্রতিষ্ঠান নেতৃত্ব দিচ্ছে তাদের মধ্যে অন্যতম এই অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস। অ্যামাজন ক্লাউডে অনেক ধরনের সার্ভিসেস প্রদান করে থাকেন তার মধ্যে অন্যতম হলঃ

http://www.techtunes.com.bd/

এই সেবা গুলো অ্যামাজন সবার জন্য প্রভাইড করে থাকে তবে এই সেবা গুলো নিতে গেলে আপনাকে একটি অ্যামাজন অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। তার মানে আপনাকে অবশ্যই একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এখন একটা প্রশ্ন আসতে পারে কেন এডব্লিউএস (AWS) সেবা নেব বা কেন ব্যবহার করব?

আমরা জানি বর্তমানে সব প্রতিষ্ঠান তার ইনফ্রাস্ট্রাকচার কমিয়ে অনলাইন বেজ (ক্লাউডে)  হয়ে যাচ্ছে। কারন একটি ইনফ্রাস্ট্রাকচার গঠনে অনেক ধরনের খরচ ও ডিজাস্টার হওয়ার যে ভীতি কাজ করে সেখান থেকে বাচতে আজ ক্লাউড কে সহজ করে নিয়েছে। আপনি চিন্তা করেন আপনার অফিসের সার্ভার রুম যদি আগুনে পুরে যায় তাহলে কি হবে? আমরা যেহেতু ক্লাউড সম্পর্কে অনেক টিউন পড়েছি তাই আজ আর ক্লাউড নিয়ে কথা বলব না।

আপনি ক্লাউডে অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে আপনাকে অবশ্যই একটি ভ্যালিড মেইল অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। আপনার যদি মেইল অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে এখনই http://www.amazon.com গিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। আমরা যেহেতু অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস নিয়ে কথা বলব এই জন্য আপনাকে aws.amazon.com/free গিয়ে অ্যামাজন ফ্রি সেবা সম্পর্কে জানতে পারবেন ও সেখানে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।

প্রথম স্টেপঃ ব্যাসিক তথ্য

১# আপনাকে একটি ভ্যালিড মেইল অ্যাড্রেস দিতে হবে

২# আপনাকে একটি জটিল পাসওয়ার্ড তৈরি করতে হবে। যেখানে বর্ণমালা ছোট ও বড় হাতের থাকবে এবং নাম্বার, স্যম্বল মিশ্রণ থাকতে হবে।

৩# আপনার ওয়েব সার্ভিসেস নাম কি হবে

দ্বিতীয় স্টেপঃ আপনার বা প্রতিষ্ঠানের তথ্য

১# প্রথমে আপনাকে সিধান্ত নিতে হবে আপনি প্রফেশনাল না পার্সোনাল করতে চান। আমি পার্সোনাল ইনফর্মেশন কথা উল্লেখ করছি।

২# আপনার নাম দিতে হবে।

৩# আপনার কোম্পানির নাম। দিতে ও পারেন নাও দিতে পারেন।

৪# আপনার ভ্যালিড ফোন নাম্বার

৫# আপনার দেশ, ঠিকানা ও টিউন কোড ইত্যাদি

তৃতীয় স্টেপঃ পেমেন্ট ইনফর্মেশন

১# আপনার একটি ভ্যালিড মাস্টার কার্ড নাম্বার

২# কার্ডের মেয়াদ শেষ তারিখ

৩# কার্ড যার নামে আছে

 

আর কিছু স্টেপ আপনাকে শেষ করতে হবে যেমন আপনার কে কিছু সিকিউরিটি প্রশ্ন উত্তর দিতে হবে। এইখানে একটা কথা বলে নেয়া ভাল আপনার সকল তথ্য নিরাপদ থাকবে। আপনার সকল তথ্য ঠিক থাকলে আপনি আমাজনের সকল সেবা ব্যবহার করতে পারবেন। একটা সতর্কতা হল আপনি যেটুকু ফ্রি সেটুকু ব্যবহার করুন নয়ত আপনার এক্সট্রা ডলার গুনতে হবে। সব কিছু ঠিক থাকলে আজ এই পর্যন্ত। আগামী পর্বে দেখব কিভাবে একটা কম্পিউটার বানানো হয় ক্লাউডে। আপনাদের যদি অ্যাকাউন্ট খুলতে কোন সমস্যা হয় তাহলে নিচের ভিডিওটা দেখে নিতে পারেন।

সর্বপরি আপনি ভালো থাকুন। আল্লাহ্‌ হাফেজ।

 


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *