ঈদের আগে বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভ হোটেল শ্রমিকদের


জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশন। ছবি : ফোকাস বাংলা

আসন্ন ঈদের কমপক্ষে এক সপ্তাহ আগে হোটেল, রেস্টুরেন্ট, মিষ্টি, বেকারী, ফাস্টফুড, চাইনিজ রেস্তোরা শ্রমিকদের বকেয়া পাওনা, মজুরি ও এক মাসের মজুরির সমপরিমাণ উৎসব বোনাস প্রদানের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশন এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, হোটেল সেক্টরের শ্রমিকরা সীমাহীন দুঃখ-কষ্টে নিমজ্জিত। একজন গ্লাসবয় চার হাজার টাকা মাসিক মজুরিতে কাজ করে। একজন টেবিলবয় চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা মাসিক মজুরিতে কাজ করে। সাপ্তাহিক ছুটি নেই। কথায় কথায় ছাঁটাই নির্যাতন অব্যাহত আছে। শ্রম আইনে কিছু কিছু অধিকার প্রাপ্য হলেও শ্রমিকরা কখনো তা পায় না।

বক্তারা বলেন, ঈদ বা কোনো উৎসব আসলেই শুরু হয় মজুরি পরিশোধ না করে, বোনাস না দিয়ে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করার হিরিক। ঈদের ছুটি শেষে অনেকেরই চাকরি থাকে না। তাই ঈদের এক সপ্তাহ পূর্বেই শ্রমিকদের সকল পাওনা পরিশোধ, এক মাসের মজুরির সমপরিমাণ উৎসব বোনাস প্রদান করতে হবে। ঈদের ছুটি শেষে প্রত্যেক শ্রমিককে কাজে বহাল রাখার নিশ্চয়তা থাকতে হবে।

বক্তারা আরও বলেন, বর্তমান বাজারদরের সঙ্গে সংগতি রেখে বিদ্বমান মজুরি কাঠামো পরিবর্তন করে মজুরি বৃদ্ধি করতে হবে। পুঁজির শোষণের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানান বক্তারা।

বিক্ষোভ সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল খালেক ও সমাবেশ পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন।

সমাবেশে বক্তব্য দেন— বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. ইয়াসিন, বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবির, বাংলাদেশ ওএসকে গার্মেন্টস অ্যান্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দত্ত প্রমুখ।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *