কুড়িগ্রামে হানিফ পরিবহন কাউন্টারে ছাত্রলীগের তালা


কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হানিফকে দেশে ফিরিয়ে এনে শাস্তির দাবি করেছে জেলা ছাত্রলীগ। এ সময় সোমবার সকাল ১১টায় কুড়িগ্রাম শহরের হানিফ কাউন্টারে তালা দিয়ে দেয় জেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা।

জানা যায়, রোববার রাত নয়টায় কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর আমিন ও জেলা হিন্দু-বৈদ্য-খ্রিস্টান ছাত্র ঐক্য পরিষদের সভাপতি বিশ্বজিৎ রায় বিশু সাধারণ ছাত্রদের নিয়ে শহরস্থ কাউন্টার পাড়ায় এসে হানিফ গাড়িতে ভ্রমণ না করার জন্য যাত্রীদেরকে অনুরোধ করেন। হানিফ কাউন্টার বন্ধ রাখার জন্য তারা জেলা মোটর মালিক সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান বকসীর কাছেও স্মারকলিপি প্রদান করেন।

জেলা মটর মালিক সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান বকসী জানান, রোববার রাত ১০টায় ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে ছাত্রলীগের ছেলেরা আমার কাছে স্মারকলিপি প্রদান করে। ২৪ ঘণ্টা না যেতেই সোমবার সকাল ১১টায় হানিফ কাউন্টার বন্ধ করে দেয়া হয় বলে কাউন্টারের পক্ষ থেকে আমাকে জানানো হয়। বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। এ নিয়ে সন্ধ্যায় মোটর মালিকদের নিয়ে বসে যা ভাল হয় তাই করা হবে।

কুড়িগ্রাম হানিফ পরিবহণ’র কাউন্টার ম্যানেজার নুরু মিয়া জানান, হানিফ পরিবহণে হাজার হাজার মানুষ চাকরি করে জীবিকা নির্বাহ করছে। মালিক দোষ করলে তার জন্য আইন আছে। আমরা সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। আমাদের পেটে লাথি দিলে আমরা পথে গিয়ে বসবো। পরিবহণের লোকজনের অপরাধ থাকলে তাদের বিচার করতো। এখানে আমাদের দোষ কোথায়।

বিষয়টি নিয়ে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রকিবুজ্জামান রাকিব জানান, হানিফ একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। সে দেশে ফিরে এসে আত্মসমর্পণ করলে কাউন্টার খুলে দেয়া হবে।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *