‘গণতন্ত্রের অভিযাত্রা অব্যাহত রাখতে ১৪ দলকে নির্বাচিত করুন’


বক্তব্য রাখছেন– ওয়ার্কার্স পার্টির চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবু হানিফ

বিএনপি-জামায়াতের জঙ্গিবাদী ষড়যন্ত্র রুখতে ১৪ দলের নেতৃত্বাধীন সরকারকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও নির্বাচিত করার আহ্বান জানিয়েছেন ওয়ার্কার্স পার্টির চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবু হানিফ। শুক্রবার (১৭ আগস্ট) চট্টগ্রাম জেলা কমিটির দোস্ত বিল্ডিংস্থ দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের হত্যাচেষ্টার ঘটনার ২৬তম বার্ষিকীতে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট আবু হানিফ বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত এখনও জঙ্গিবাদী ধারাকে বিস্তার ঘটাতে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তারা বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা থেকে বিচ্যুত করতে চায়। তাদের এ অপচেষ্টা সফল হতে দেওয়া যাবে না। তাহলে বাংলাদেশ আবারও পিছিয়ে পড়বে। দেশের চলমান উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে এবং জঙ্গিবাদী ধারাকে রুখতে ১৪ দলের নেতৃত্বাধীন সরকারকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও নির্বাচিত করতে হবে। এজন্য মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সব শক্তিকে ঐক্যবদ্ধভাবে সক্রিয় থাকতে হবে।’

সভায় ওয়ার্কার্স পার্টির চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শরীফ চৌহান বলেন, ‘বিএনপি নামক দলটির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান সংবিধান সংশোধন করে বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার কাজ বন্ধ করে দিয়েছিল। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশকে অসাম্প্রদায়িক ধারা থেকে পাকিস্তানি ধারায় নিয়ে যেতে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করেছিল। এর ধারাবাহিকতায় ১৯৯১ সালে বিএনপি মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত রাজাকার-আলবদরদের সঙ্গী করে ক্ষমতাসীন হয়। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় জঙ্গিবাদকে লালন-পালন করে। এরই ফলস্বরূপ ২০০৫ সালের ১৭ অগাস্ট সারাদেশের ৬৩টি জেলায় একযোগে বোমা হামলা ঘটিয়ে জঙ্গিগোষ্ঠী তাদের উপস্থিতি জানান দেয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘সেই ধারাবাহিকতা আজও চলছে। জঙ্গিরা সারাদেশের বিভিন্ন স্থানে বারবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে চেয়েছে। তার অনেক নমুনা আমরা সাম্প্রতিক সময়ে পেয়েছি। এই বিধ্বংসী ধারা বন্ধ করতে হলে জঙ্গিবাদের শেকড় উৎপাটন করতে হবে।’

শরীফ চৌহান বলেন, ‘রাশেদ খান মেননকে স্বাধীনতাবিরোধী ও সাম্প্রদায়িক শক্তিই হত্যার চেষ্টা করেছিল। সেই ঘটনার পর পুলিশ বাদী হয়ে যে মামলা করে তা ছিল অত্যন্ত দুর্বল। তারা দায়সারাভাবে মামলার তদন্ত শেষ করতে চেয়েছিল। পরে মামলাটির অধিকতর তদন্তের যে উদ্যোগ নেওয়া হয়, সেটাও গতি হারিয়েছে। দ্রুত সেই কাজ শেষ করে দোষীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে আলোচকরা অবিলম্বে রাশেদ খান মেনন হত্যাচেষ্টার ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানান।

শরীফ চৌহানের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম চৌধুরী, ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মোক্তার আহমেদ, জেলা কমিটির সদস্য অধ্যাপক শান্তপদ বড়ুয়া মানু, আবু সৈয়দ বলাই ও মনসুর মাসুদ, আমীন জুট মিল ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সামশুল আলম, যুব মৈত্রী জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরনবী আরিফ, ছাত্রমৈত্রী নগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ সিকদার ও জেলা সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন।

 





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *