পুলিশের সাইবার ইউনিটের অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী


সিআইডিসাইবার অপরাধ ঠেকাতে পুলিশের সাইবার ইউনিট গঠন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) এই ইউনিটের অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একজন ডিআইজির নেতৃত্বে এই ইউনিটটি কাজ করবে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) অধীনে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন সিআইডির ডিআইজি সাইফুল আলম।
সিআইডি সূত্র জানায়, পুলিশ সদর দফতর থেকে সিআইডির সাংগঠনিক কাঠামোতে সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ব্যুরো গঠনের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদবির ৫৭৫টি পদ সৃষ্টি এবং ১০০টি যানবাহন টিওঅ্যান্ডইভুক্ত করার জন্য অনুরোধ করে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর নীতিগত অনুমোদিত ৫০ হাজার পদের অন্তর্ভুক্ত হিসেবে সিআইডির সাংগঠনিক কাঠামোতে ‘সাইবার পুলিশ সেন্টার’ গঠন এবং এর কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ৩৬৯টি পদ সৃষ্টির জন্য সম্মতি প্রদান করে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সম্মতির ধারাবাহিকতায় অর্থ বিভাগের ব্যয় নিয়ন্ত্রণ অনুবিভাগ ৩৪২টি পদ ও ৪৯টি যানবাহন টিওঅ্যান্ডই ভুক্ত করার জন্য সম্মতি দিয়েছে।
একজন ডিআইজির নেতৃত্বে পরিচালিত হবে সিআইডির এই বিশেষায়িত ইউনিট। একজন ডিআইজি, দুইজন অতিরিক্ত ডিআইজি ও তিনজন পুলিশ সুপার, ছয় জন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ১৮ জন সহকারী পুলিশ সুপার, ৪৫ জন ইন্সপেক্টর, এসআই (নিরস্ত্র) ১৪০ জন, এএসআই (নিরস্ত্র) ৩০জন, কনস্টেবল ৭৫ জনসহ ৩৪২ জনের একটি সাংগঠনিক কাঠামোর মঞ্জুরী দেওয়া হয়েছে।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব কামরুল আহসান তালুকদার স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে বৃহস্পতিবার এ মঞ্জুরী দেওয়া হয়।
সংশ্লিষ্টরা জানান,সাইবার ক্রাইম অপারেশন ও ইনভেস্টিগেশন, সাইবার ক্রাইম সার্ভিলেন্স ও পেট্রোলিং এবং সাইবার ক্রাইম সংশ্লিষ্ট গবেষণা ও প্রশিক্ষণের জন্য কার্যকরী ভূমিকা থাকবে এ ইউনিটের।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *