পৃথিবীর সব থেকে ছোট কম্পিউটার Raspberry pi মাত্র ৩০০০৳ – বিস্তারিত দেখুন


বর্তমান যুগকে বলা হয় প্রযুক্তির যুগ। কারণ যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে আমরা অনেক নতুন নতুন প্রযুক্তির সাথে পরিচিত হচ্ছি যেগুলো আমাদের দৈনন্দিন কাজ কে অনেক সহজতর করে তুলছে।
কম্পিউটার হচ্ছে তার একটি জলন্ত উদাহরণ।
এখন পর্যন্ত আমরা অনেক কম্পিউটার দেখেছি বা নাম শুনেছি। যেমনঃ মিনি কম্পিউটার, ল্যাপ্টপ, সুপার কম্পিউটার ইত্যাদি ইত্যাদি।
তবে আমি আপনাকের আজ যেই কম্পিউটারের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে তার নাম অনেকেই হয়ত শুনে থাকবেন। তবে বেশির ভাগই এর সম্পর্কে তেমন ধারণা নেই।
Raspberry Pi হচ্ছে পৃথিবীর সবথেকে ছোট কম্পিউটার। এটি রিলিজ হয় ২০১২ সালের দিকে।

উপরে দেখতে পাচ্ছেন একদম ছোট্ট একটা বকক্স। ক্রেডিট কার্ড সাইজ।
হ্যাঁ, এটাই হচ্ছে Raspberry Pi.
এটা একটা ফুলফিল কম্পিউটার।
কম্পিউটার এর বড় সিপিউ তে যেই জিনিস গুলো থাকে তার প্রায় সব কিছুই এর ভিতর রয়েছে।

এবার দেখে নিন এর স্পেপিকেশনঃ
CPU: Quad-core 64-bit ARM Cortex A53 clocked at 1.2 GHz
GPU: 400MHz VideoCore IV multimedia
Memory: 1GB LPDDR2-900 SDRAM (i.e. 900MHz)

USB ports: 2
Video outputs: HDMI, composite video (PAL and NTSC) via 3.5 mm jack
Network: 10/100Mbps Ethernet and 802.11n Wireless LAN
Peripherals: 17 GPIO plus specific functions, and HAT ID bus
Bluetooth: 4.1
Power source: 5 V via MicroUSB or GPIO header
Size: 85.60mm × 56.5mm
Weight: 45g (1.6 oz)

এর ভিতর রয়েছে ১ জিবি র‍্যাম, ২টা ইউএসবি পোর্ট, একটা HDMI output Port, Quad-core 64-bit ARM Cortex A53 clocked at 1.2 GHz Processor, Built in Wi-Fi and Bluetooth etc etc…

এই কম্পিউটার টির দাম বাংলাদেশি টাকায় ৩০০০ টাকার মত।
তবে এটা বাংলাদেশ এ Available না।
আপনারা চাইলে Aliexpress, Gearbest অথবা অন্য কোন E-Commerce Site থেকে অর্ডার করতে পারবেন।

কীভাবে ব্যবহার করবেন এই কম্পিউটারঃ
এটা ব্যবহার করার জন্য প্রথমত দরকার একটি মনিটর, কী বোর্ড এবং মাউস। আপনি বাসার টিভি কেও মনিটর হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।
এখানে টিভিতে আপনাকে কিছু করতে হবেনা শুধু কেবল দিয়ে কানেক্ট করে দিলে হবে।
বাকি সব কাজই মাউস কীবোর্ড এর সাহায্যে করতে হবে একদম জেনারেল কম্পিউটার এর মত।

এরপর পিসির সাহায্যে একটা মেমরি কার্ডে অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল দিয়ে মেমরি কার্ড টা Respberry Pi এ লাগিয়ে চার্জার দিয়ে কানেক্ট করে দিলেই কম্পিউটার বুট হতে শুরু করবে।
বিঃদ্রঃ আপনি কোন পরিচিত দোকান থেকে অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করে নিতে পারেন।

এই কম্পিউটারে আপনি যেকোন অপারেটিং সিস্টেম যেমনঃ উইন্ডোজ, লিনাক্স, উবুন্টু ব্যবহার করতে পারবেন।

আজ এই পর্যন্ত!!!!

পোস্ট টি ভালো লাগলে আমার সাইট টি একবার হলেও ঘুরে দেখবেন।
আমার সাইট MXTRICKS.COM





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *