‘#মি টু’ আটকে দিয়েছে চারটি ছবি!


‘#মি টু’ নামের সাইক্লোনের জেরে বলিউড তছনছ হতে বসেছে। এই আন্দোলনের জালে রুই-কাতলার পর ধীরে ধীরে রাঘববোয়ালরা ফাঁসছেন। এই যুগান্তকারী আন্দোলনের জেরে বলিউডের আজ একাধিক ব্যক্তির ভবিষ্যৎ প্রশ্নের মুখে পড়েছে। ‘#মি টু’ অভিযান নানা পাটেকার, অলোক নাথ, সাজিদ খান, সুভাষ কাপুর, বিকাশ বহেল, লাভ রঞ্জনসহ অনেকের পেশাগত জীবনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবনও ছারখার করে দিচ্ছে। এর প্রভাবে বলিউডের নতুন কিছু ছবির ভবিষ্যৎকে প্রশ্নের মুখে ঠেলে দিয়েছে। ছবিগুলোর সঙ্গে যুক্ত অভিনেতা কিংবা পরিচালকেরা যৌন হেনস্তার দায়ে অভিযুক্ত। তাই ছবির মূল অভিনেতারা ছবিটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। এমনকি কয়েকটি ছবির শুটিং শুরু হয়েও ‘#মি টু’ অভিযানের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে। এই আন্দোলনের ঢেউ বলিউডের অর্থনীতির বুকে আছড়ে পড়েছে। আজ ‘#মি টু’র প্রভাবে বিটাউনের কোটি কোটি টাকা আটকে আছে। এই মুহূর্তে চারটি ছবি এই আন্দোলনের শিকার হয়েছে। আর তার জন্য ফেঁসে আছে ৪৫০ কোটি রুপি!

‘হাউসফুল ফোর’ ছবির অভিনয়শিল্পী রিতেশ দেশমুখ, ববি দেওল ও অক্ষয় কুমার
হাউসফুল ফোর
‘হাউসফুল’ সিক্যুয়ালের আগামী ছবি ‘হাউসফুল ফোর’-এর বাজেট ১৫০ কোটি রুপি। ছবিটি পরিচালনা করছিলেন পরিচালক সাজিদ খান। ‘#মি টু’র মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনজন নারী এই পরিচালকের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ আনেন। এমনকি বলিউড তারকা বিপাশা বসু অভিযোগ করেন, সাজিদ সেটে নানা অশ্লীল কথা বলতেন। ‘#মি টু’ অভিযানে সাজিদের নাম উঠে আসায় এই ছবির অভিনেতা অক্ষয় কুমার নির্মাতাদের শুটিং বন্ধ রাখার অনুরোধ জানান। ‘হাউসফুল ফোর’-এর নির্মাতারা সাজিদকে এই ছবির পরিচালনার দায়িত্ব থেকে সরে যেতে বলেন। জানা গেছে, এখন সাজিদের বদলে ফরহাদ সামজি ছবিটি পরিচালনা করবেন। এই ছবির অন্যতম প্রধান চরিত্রে বলিউডের শক্তিমান অভিনেতা নানা পাটেকার ছিলেন। কয়েকটা দৃশ্যের তাঁর শুটিং হয়েছে। কিন্তু এবার ‘#মি টু’ আন্দোলনের প্রথম অভিযুক্ত নানা পাটেকার। বলিউড তারকা ও সাবেক ভারত সুন্দরী তনুশ্রী দত্ত তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন। আর তার জেরে ‘হাউসফুল ফোর’ থেকে নানা সরে যাচ্ছেন। তাঁর জায়গায় বলিউড অভিনেতা অনিল কাপুর আসছেন। সম্প্রতি জয়সলমীরে নানা পাটেকার এই ছবির কিছু দৃশ্যের শুটিং সেরে ফেলেছেন। তাই তাঁর জায়গায় নতুন যে অভিনেতা আসবেন, তাঁকে আবারও সেই দৃশ্যগুলো শুট করতে হবে। ‘হাউসফুল ফোর’ ছবিতে অক্ষয় কুমার ছাড়া সঞ্জয় দত্ত ও ববি দেওলকেও দেখা যাবে।

‘সুপার থার্টি’ ছবির পোস্টার
সুপার থার্টি
‘সুপার থার্টি’ ছবির মুখ্য ভূমিকায় আছেন হৃতিক রোশন। ছবির পরিচালক বিকাশ বহেল। তাঁর বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। তাই হৃতিক রোশন ছবির কাজ আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি ছবির নির্মাতাদের বলেছেন তাঁরা যেন বিকাশের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেন। ১০০ কোটি রুপি বাজেটের এই ছবির অনেকটা শুটিং হয়ে গেছে। ‘#মি টু’র প্রকোপে ছবিটির মুক্তির দিন হয়তো আরও পেছাতে পারে। বিহারের সমাজসেবক ও অঙ্কবিদ আনন্দ কুমারের জীবন নিয়ে এই ছবিটি।

‘মুঘল’ ছবির পোস্টার
মুঘল
‘মুঘল’ ছবির পরিচালক সুভাষ কাপুরের বিরুদ্ধেও যৌন শোষণের অভিযোগ উঠেছে। আর তার প্রতিবাদে আমির খান এই ছবি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। ‘মুঘল’ ছবিতে প্রথমে অক্ষয় কুমারের অভিনয় করার কথা ছিল। পরে আমির খানকে এই ছবির সঙ্গে যুক্ত করা হয়। সুভাষ কাপুরের বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিন ধরে যৌন হেনস্তার মামলা চলছে, এই কথা আমিরের কানে যাওয়ার পর তিনি এই ছবি থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন। ছবিটির নির্মাতা ভূষণ কুমার পরিচালক সুভাষ কাপুরকে পরিচালনার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেন। এদিকে গুলশান কুমারের ছেলে ভূষণ কুমারের বিরুদ্ধেও যৌন উৎপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। সংগীত জগতের অলিখিত সম্রাট গুলশান কুমারের জীবনের ওপর ১০০ কোটি রুপি বাজেটের এই ছবিটি নির্মাণ হচ্ছে।

‘দে দে প্যায়ার দে’ ছবির ভবিষ্যৎ এখন প্রশ্নের মুখে
দে দে প্যায়ার দে
‘প্যায়ার কা পঞ্চনামা’ এবং ‘সোনু কে টিটু কি সুইটি’র মতো হিট ছবির পরিচালক লাভ রঞ্জনের ওপর যৌন হেনস্তার অভিযোগ উঠেছে। তার জেরে ‘দে দে প্যায়ার দে’ ছবির ভবিষ্যৎ এক প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়েছে। অজয় দেবগন ও রণবীর কাপুর এই ছবিতে অভিনয় করবেন। ছবিটি প্রযোজনার দায়িত্বে আছে অজয়ের প্রযোজনা সংস্থা। লাভ রঞ্জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর অজয় এই ছবি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। এই বলিউড সুপারস্টারের বক্তব্য, তাঁর কোম্পানি যৌন উৎপীড়নের মতো দোষে দোষী কোনো ব্যক্তির পাশে নেই। এই ছবির বাজেট ১০০ কোটি রুপি।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *