সালিশের পর যুবলীগের তিন নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ


রাজধানীর ওয়ারী থানার দক্ষিণ মুসুন্দি এলাকায় রাতের আঁধারে মুখোশধারী দুর্বৃত্তদের গুলিতে স্থানীয় যুবলীগের তিন নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। শনিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে ঘটনা ঘটে। স্থানীয় একটি বিষয় নিয়ে দুপক্ষের সঙ্গে সালিশ বৈঠকে বেসেছিলেন তারা। কিন্তু সালিশের সিদ্ধান্ত কোনো পক্ষই মানেননি। এর কিছুক্ষণ পরই এই গুলির ঘটনা ঘটলো।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- ৪১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল (৩২), ওই ওয়ার্ডের ৩ নং ইউনিটের সভাপতি রবিন (৩০) ও যুবলীগকর্মী কাজল (৩৭)। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

jagonews24

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ইনচার্জ (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, তিন জনই পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

আহত কাজল ইসলাম জানান, রাতে তারা ৮-৯ জন মিলে দক্ষিণ মুসন্দি বনফুল হোটেলের সামনে একটি কসাইয়ের দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় হঠাৎ ৪-৫ জন মুখোশধারী যুবক তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। মুহূর্তের মধ্যই দৌড়ে পালিয়ে যান তারা।

jagonews24ওয়ারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিম মিয়া বলেন, রাত ৯টার দিকে দক্ষিণ মুসন্দির একটি মাংসের দোকানে স্থানীয় যুবলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী বসে ছিলেন। তখন ৫-৬ জন মুখোশধারী যুবক সেখানে এসে তিনজনের পায়ে গুলি করে দ্রুত চলে যায়।

তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, এই যুবলীগ নেতারাসহ বেশ কয়েকজন সেখানে এলাকার কোনো একটি বিষয় নিয়ে দুপক্ষের সঙ্গে সালিশ বৈঠক করে। কোনো পক্ষই সালিশের সিদ্ধান্ত না মানায় তা বাতিল হয়ে যায়। দুই পক্ষ চলে যাওয়ার পর যুবলীগের এই নেতাকর্মীরা সেখানে আড্ডা দিচ্ছিলেন।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, ঘটনার পর সিসি ক্যামেরার ধারণ করা ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। ফুটেজে দেখা যায়, যারা এসেছিল তাদের প্রত্যেকে ‘মাংকি ক্যাপ’ পরা ছিল। ঘটনাটি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে।

জেইউ/জেডএ





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *